কিভাবে ব্লগার ইমেজ অপ্টিমাইজ করবেন।

কিভাবে ব্লগের ইমেজ অপ্টিমাইজ করবেন।

ব্লগার ইমেজ অপ্টিমাইজ কিভাবে করবেন এমন ধরনের প্রশ্ন আমাদের প্রায়ই শুনতে হয়। আবার অনেকেই প্রশ্ন করেন কিভাবে করতে হয় এটিকে কিংবা কেনো করতে হয়।
তাই সে বিষয় নিয়েই একটি সু-স্পষ্ট ধারনা দিতে চাই বলেই আজকের এই নতুন নিবন্ধিত ব্লগ।
কারন আমাদের যাদের ব্লগারে সাইট আছে তারা নরমাল্লি কোন ওয়ার্ডপ্রেস এর মত করে ইমেজ অপ্টিমাইজ করতে পারে না।
কারন ব্লগার এর সেই দিক থেকে ওয়ার্ডপ্রেসের তুলনায় অনেক বেশি সীমাব্ধতা আছে বলে আমি মনে করি।।
তো যার কারনেই আমাদের এই কাজ টি কিছু ৩র্ড পার্টি সাইট এর সাহায্যে করতে হবে।
একটি ব্লগ সাইট এর ইমেজ গুলি যত অপ্টিমাইজ করা যাবে তত তারাতারি বা দ্রুত আমাদের সাইট ও লোডিং নিয়ে থাকবে।
তো বন্ধুরা কিভাবে করবেন এই ইমেজ এর অপ্টিমাইজেশন সেই বিষয়ে । 
তাইআর কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেই কিভাবে ব্লগারে ইমেজ অপ্টিমাইজেশন করবেন।

ইমেজ অপ্টিমাইজ কি?

ইমেজ অপ্টিমাইজ করার পূর্বে আমাদের জানতে হবে এই ইমেজ অপ্টিমাইজ কি?
মূলত ইমেজ অপ্টিমাইজ হলো আমরা যখন কোন একটি ছবি ব্যবহার করার উদ্দ্যেশে রেজুলেশন ঠিক রেখে এর সাইজ কে কমিয়ে দেই সেটাই মূলত অপ্টিমাইজেশন।
কারন আমরা যখন একটি ছবি তুলি বা তৈরি করে থাকি তখন এর সাইজ টা অনেক বেশি হয়ে যায়।
যার কারনে অই ধরনের ইমেজ এর সাইজ কে রেজুলেশন ঠিক রেখে আমাদের ইমেজের সাইজ যেটি আছে সেটি কমিয়ে আনতে হয়।
যেমন একটি ছবির রেজুলেশনের সাইজ আছে ৬০০ কেবি সেটিকে কম্প্রেশন টুলস এর মাধ্যমে কমিয়ে ২০ কেবি তে আনতে হয়।
এটা আপনি ইমের কম্প্রেশন ও বলতে পারেন।

ইমেজ অপ্টিমাইজ কি কাজে লাগে?

ইমের অপ্টিমাইজ বা কম্প্রেশন টা একটি ব্লগের ক্ষেত্রে অনেক বেশি দরকারী।
এটি কমানোর উদ্দ্যেশ একটাই যে এটি একটি পোষ্ট বা আর্টিকেলের মধ্যে ব্যবহৃত ছবি করার পরে সেই আর্টিকেল যেন খুব দ্রুতই লোড নেয়।
একটি ব্লগ সাইট এর ইমেজের অপ্টিমাইজ যদি না করা হয় তাহলে সেই সাইট অনেক ল্যাগি মনে হতে পারে।
অর্থাৎ আপনি যখন একটি সাইট ভিজিট করেন সেটি খুব দ্রুত লোড নেয়ার কারনই হচ্ছে ইমেজ অপ্টিমাইজ।
আপনি যখন একটি ব্লগ সাইট বানাবেন তখন অবশ্যই খেয়াল করবেন আপনার সাইট এর ভিজিটর এসে যেনো বোরিং ফিল না করে।
এতে আপনার ভিজিটর এর বাড়বে কারন সবাই চায় একটি সাইট এর পেজ যেন খুব দ্রূত লোড নিতে পারে।
সাইট যদি স্লো লোডিং হয় তাহলে অই সকল সাইট এর বাউন্স রেট অনেক বেশি হয় যায়।
এটি ব্লগার সাইট এ ব্যবহৃত ইমেজ টি যদি ১০০ কেবির হয় তাহলে এটি লোড নিতে প্রায় কয়েক সেকেন্ড লেগে যাবে। 
কিন্তু অই ইমেজ টি যদি ২০ কেবির হয় তাহলে আরো বেশি দ্রুতই অই সাইট লোড নিয়ে থাকবে।
আর এটি করার প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি যেটি আমি শেষের দিকে বলে দিচ্ছি।

কিভাবে করবেন এই ইমেজ অপ্টিমাইজ।

প্রথমেই বলে রাখি আপনি যখন একটি সাইট এর ইমেজ অপ্টিমাইজ করবেন তখন অনলাইন এর টুলস গুলি থেকে করলে অনেক বেশি হেল্প পাবেন।
এর জন্য আমার কাছে সব থেকে বেষ্ট সাইট হচ্ছে CompressNow.com এই সাইট টি।।
এবার চলুন দেখে নেই কিভাবে করবেন।
প্রথমেই আপনি যে কন্টেন্ট এর জন্য ছবি আপ্লোড করেছেন সেই ছবি টিকে ডাউনলোড করুন। তবে আপনার কাছে থেকে থাকলে সেটি কেও দিয়ে হবে।
তাই আপনি অই ছবি কে Compressnow.com  সাইট এ গিয়ে নিচের ছবিটির মত করে ইমেজ কে অপ্টিমাইজ করে নিন।

এখান আপনাকে Upload  এ ক্লিক করে আপনার যে ছবিটির সাইজ কমাবেন সেটিকে সিলেক্ট করুন ।। এর পর উপরে খেয়াল করুন % এর মত আছে আপনি ওইটা যখনই কমাবেন বাড়াবেন ততটুকুই আপনি সাইজ কত হচ্ছে দেখতে পারবেন।।
এর পর Compress  এ ক্লিক করুন এবং কম্প্রেস হয়ে গেলে নিচ থেকে Download এ ক্লিক করে ছবিটি ডাউনলোড করে নিন।।
ব্যাস হয়ে গেলো ইমেজের সাইজ কমিয়ে নেয়া এর পর এটি আপনি আপনার ব্লগে ব্যবহার করতে পারবেন।।
বলে রাখা ভালো যে আমার এই সাইটে ব্যবহার করা প্রতিটি ছবি ইমেজ কম্প্রেস করা।
একটি প্রমান স্বরুপ সাইটের GTmetrix – এর একটি প্রুভ দেখতে পারেন।।
কিভাবে ব্লগার ইমেজ অপ্টিমাইজ করবেন।

ইমেজ অপ্টিমাইজ বা কম্প্রেশন এর সুবিধা কি?

ইমেজ কম্প্রেস বা অপ্টিমাইজ করে ব্যবহার করলে একটি সাইটে লোডিং স্পীগ অনেক কমে যায়।
যার কারনে সাইটে ভিজিটর এসে কোন প্রকার সমস্যা হয় না।।
এটি করলে আরেকটি সুবিধা আছে সেটি হচ্ছে যাদের গুগল এডসেন্স আছে তাদের জন্য।
কারন ইমেজ অপ্টিমাইজ এর জন্য সাইট অনেক ফাষ্ট লোডিং নিবে।
কোন এডস দেখালেও পেজ আসতে সময় নিবে না।
তাছাড়া গুগলের কোড় আপডেট বর্তমানে পেজ লোডিং স্পিডের উপর বিশেষ ভাবে নজর দিয়েছে। যার কারনেই গুগল সার্চ কনসোলে নতুন একটি পেজ স্পিড এর অপশন দিয়েছে।
তাছাড়া এটি অন-পেইজ এসইও এর অংশ বিশেষ বলা যায়।।
তো বন্ধুরা আশা করি আজকের প্রিমিয়াম নিবন্ধিত ব্লগ পোষ্ট টি আপনাকে সাহায্য করবে আপনার সাইট এর পেজ লোডিং স্পী কমিয়ে আনতে এবং ভিজিটর ধরে রাখতে।
তাই যদি আজকের এই ব্লগ পোষ্ট টি আপনার কাছে ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে ভাগ করে নিন। এতে আপনি ও আপনার বন্ধু দুজনই ব্লগার এর বিষয়ে কিছু জানতে পারবেন।।
আর যেকোন প্রকার মন্তব্য জানিয়ে নিচের কম্মেন্ট বক্সে কম্মেন্ট দিন।।

Leave a Comment