ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস কোনটি বেষ্ট আপনার জন্য?

by Admin

ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস কোনটি বেষ্ট আপনার জন্য!

হাই বন্ধুরা সবাই কেমন আছেন আশা করি মোটামোটি আমরা সবাই ভালো আছি কি বলেন। আজকের আবারো আপনাদের জন্য একটি বেষ্ট টিপস নিয়ে হাজির হয়েছে। 
 
এবং আজকের এই পূর্ন ব্লগে চেষ্টা করবো আপনাকে সম্পূর্ন ভাবে বুঝিয়ে দিতে আজকের বিষয় বস্তুর উপরে।আপনারা অনেকেই তাহলে এতো ক্ষনে হয়তো বুঝে গেছেন আজকের বিষয় টি মূলত কিসের উপর হ্যা বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদের সাজেষ্ট করবো ব্লগিং করার ক্ষেত্রে ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস কোন টি সব থেকে বেটার হবে আপনার জন্য।
 
এই পূর্ন ব্লগটি বোঝার জন্য আপনার থেকে আমি কয়েক মিনিট সময় নিবো কারন এতে ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস দুই প্লাটফর্মের উপরে আলোচনা করে বুঝিয়ে দেয়ার চেষ্টা করবো।
 

তাহলে এবার আসি মূল আলোচনায়।

 

blogger vs wordpress

 

ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস? কোন টি আপনার জন্য?

বর্তমান ব্লগিং আগের থেকে অনেক জনপ্রিয় হয়ে যাচ্ছে প্রতিদিন।প্রায় হাজারো মানুষ ব্লগিং এ যুক্ত হচ্ছে তার আগে বলে নেই ব্লগিং কি??
 
তাহলে সোজা ভাষায় বলি আপনি অনলাইন দুনিয়ার যে প্লাটফর্মে আপনার ভাষা প্রকাশ করেন স্টাটাস আপডেট করেন সেটাই ব্লগিং। 
 
অতএব শুধু সাইটে লেখা লেখি করলেি সেটা ব্লগিং হয় না ব্লগিং হচ্ছে অনলাইন দুনিয়া তে মনের ভাব প্রকাশ।
 
তাহলে আমরা অন্তত এটুকু বুঝে গেছি ব্লগিং মূলত কি?
 
ব্লগিং করার ক্ষেত্রে আপনাকে সব সময় ইউনিক হবার চেষ্টা করতে হবে এবং যেটা কেউ কোন দিন করে নি সেটা আপনাকে করতে হবে। 
 
লেখার বিষয় বস্তু অন্যদের থেকে আলাদা হতে হবে এবং আপনি যে বিষয়ে এক্সপার্ট সে বিষয়েই লিখতে পারেন।
 
ব্লগ লেখার ক্ষেত্রে ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস বর্তমানে প্রচুর জনপ্রিয় এবং এ মাধ্যম গুলি তে নিজেকে প্রকাশ করে অনলাইন জগতে একটা বড় প্রমান রাখা যেতে পারে নিজেকে নিয়ে।
 
যদিও ব্লগার বা ওয়ার্ড প্রেস ছাড়া আরো বেশ জনপ্রিয় কিছু ব্লগিং সাইট বর্তমানে আছে। 
 
কিন্তু ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর প্লাটফর্ম কেই কেন ব্যবহার করা হয় জানতে ইচ্ছা করে না?
 
তাহলে বলি আপনি অনেক কষ্ট করে হাজার বা ৭০০ শব্দের ব্লগ লিখলেন ফেসবুক কিংবা অন্য মাধ্যম গুলি তে কিন্তু সেখান থেকে আপনি কি অর্জন করবেন? 
 
বড় জোড় কিছু লাইক আর বাহব্বা। 
কিন্তু যারা ব্লগার কিংবা ওয়ার্ডপ্রেসে একটা সাইট ওপেন করে নিজেদের প্রকাশ করে তারা জনপ্রিয়তার পাশাপাশি আর্নিং করছে সাথে বাহব্বা তো আছেই তাহলে লাভ কোথায়?
 
আপনার জন্য কোন প্লাটফর্ম কে বাছাই করে নিতে হবে সেটা কিভাবে বুঝবেন!
 

কারন আমরা এ নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারি না অনেকর কাছে গিয়েও কেউ আমাদের সঠিক পথও দেখাতে পারে না।

 

কারন এই বিষয় সম্পূর্ন আপনার উপর নির্ভর করে কারন আপনি যদি পারসনাল ভাবে ব্লগিং করেন সেটা একটা বিষয় আবার যদি আপনি আপনার অফিস বা প্রতিষ্ঠান কে নিয়ে প্রফেশনাল ভাবে ব্লগিং করেন তাহলে সেটি আরেকটি বিষয়।
 

ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস কোন টি আপনি ব্যবহার করবেন সেটি বুঝতে হলে আগে আপনাকে এই দুইটি প্লাটফর্মের উপরেও ভালো ভাবে জানতে হবে।

 

তাই আজকে আমরা ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর বিষয়ে আলোচনা করবো,এতে আপনি খুব সহজেই পছন্দ করে নিতে পারবেন আপনার নিজের প্লাটফর্ম টি এবং আপনার জন্য উপযুক্ত কিনা নিজেই বুঝবেন।
 

ব্লগার(Blogspot):

(Blogger) হচ্ছে পৃথিবীর সব থেকে বড় টেকজায়ান্ট গুগল এর একটি ব্যক্তিগত পরিচালিত নিজস্ব প্রতিষ্ঠান। 
 
যেটি খুব ভালো মানের ফ্রি ব্লগিং এর একটি প্লাটফর্ম এর জন্য বানানো হয়েছে।
 
এই ব্লগার ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই আপনার জন্য আপনার ব্যক্তিগত বা প্রতিষ্ঠান এর জন্য একটি সাইট বিল্ড করতে পারবেন। 
 
আপনি যদি ওয়েবডেভ্লোপ এর বিষয়ে পুরো পুরি অজ্ঞ না হয়ে থাকেন তাহলেও ব্যবহার করতে পারবেন এইটি শুধু মাত্র ব্যাসিক জ্ঞান দিয়েই কারন এটি তে প্রচুর ফ্রি থিম থাকে যা দিয়ে আপনি সহজেই কাষ্টমাইজ করে নিতে পারবেন এবং বিনামূল্যেই একটি সাইট করতে পারবেন।
 

ওয়ার্ডপ্রেস(Wordpress): 

Wordpress.com এবং Wordpress.Org  দুইটি প্রায় একই মনে হলেও এদের মধ্যে রয়েছে অনেক পার্থক্য। এ বিষয়ে একবারে ছোট করে বলে রাখছি আপনাদের। Wordpress.com হলো Wordpress  এর ফ্রি ব্যাসিক প্লাটফর্ম,কারন এ ভার্ষন টি আপনি ফ্রি তেই ব্যবহার করতে পারবেন।
 
অন্য দিকে Wordpress.Org  হচ্ছে Wordpress এর প্রফেশনাল ব্লগিং প্লাটফর্ম।
 

এবং এটি ব্যবহার করতে আপনাকে টাকা গুনতে হবে,টাকার বিনিময়ে হোষ্টিং এবং ডোমেইন কিনে নিতে হবে। এটির কন্ট্রোল এবং দায় দুটোই আপনার নিজের।

এখানে তারা আপনাকে ৩ জিবি পর্যন্ত ফ্রি হোষ্ট স্টোরেজ দিবে এবং তারা নিয়মিত তাদের সাইট কে ব্যাকাপ করে তাই এ নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না

 

ওয়ার্ডপ্রেস এবং ব্লগারের মধ্যে কিছু পার্থক্যঃ

নিচের দেয়া উল্ল্যেখিত বিষয় গুলি থেকে খুব সহজেই বুঝতে পারবেন আপনি কোন প্লাটফর্মের জন্য তৈরি আছেন।
 
এ নিয়ে আমরা ছোট একটি আলোচনা তুলে ধরছি।
 

ব্লগার (Blogger) –

  1. ব্লগের ক্ষেত্রে এর ডোমেইন নাম হবে Sitename.blogspot.com এমন ধরনের।
  2. আপনি চাই Pre-register ডোমেইন নাম ব্যবহার করতে পারবেন।
  3. গুগল আপনাকে ১ জিবি স্টোরেজ দিবে তবে আপনি চাইলে গুগল প্লাসের সুবিধায় স্টোরেজ বাড়িয়ে নিতে পারবেন এ ক্ষেত্রে ব্লগারের স্টোরেজ নিয়ে ভাবতে হবে না।
  4. টেমপ্লেট কাস্টমাইজ করতে পারবেন ইচ্ছা মত।
  5. যেকোন ধরনের এইসটিএমএল কোডিং সাপোর্ট করে যা থেকে আপনি ব্লগ কে সাজাতে পারবেন।
  6. যেকোন ধরনের ডিজাইন ব্যবহার করতে পারবেন।
  7. Variable এর সাহায্যে খুব সহজেই ড্রাগ এবং ড্রপ করে এর ব্লগের ডিজাইন পরিবর্তনের সুযোগ আছে।
  8. এতে কোন প্লাগিন ব্যবহারের সুযোগ নেই। তাই আপনাকে বিভিন্ন গ্যাজেট এর সাহায্য নিতে হবে এবং ইচ্ছা মত্ন গ্যাজেট বসাতে পারবেন।
  9. গুগলের এডসেন্স ব্যবহার করতে পারবেন।
  10. আপনি চাইলে যেকোন ধরনের এডস ব্যবহার করতে পারবেন,সে ক্ষেত্রে প্রচুর ভিজিটর থাকলে আপনি এডসেন্স ছাড়া আল্টারনেটিভ এডস ব্যবহার করতে পারবেন।
 

ওয়ার্ডপ্রেস(Wordpress) –

  1. এটির গঠন এবং ডোমেইন টাকার বিনিময়ে কিনতে হবে আপনাকে।
  2. এটি ব্যবহার করতে অবশ্যই আপনাকে পকেট থেকে ১-১০ ডলারের টপ লেভেল ডোমেইন ব্যবহার করতে হবে।
  3. এটির ব্যবহার করতে আপনাকে আলাদা হোষ্টিং নিতে হবে। এবং মান্থলি কিংবা ১ বছরের জন্য কিনতে হবে টাকা দিয়ে।এবং টাকার বিনিময়ে যত ইচ্ছা এর ষ্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।
  4. এটিতেও থিম কাস্টমাইজ করার সুযোগ রয়েছে আপনার জন্য।
  5. এটিও যেকোন ধরনের কোডিং করে ব্যবহার করতে পারবেন।
  6. যেকোন ধরনের ডিজাইন ব্যবহার করতে পারবেন।
  7. ডিজাইনের ক্ষেত্রে কোডিং এর জ্ঞান থাকতে হবে আপনার।
  8. প্লাগিন ব্যবহার করতে পারবেন।
  9. ইচ্ছা মতন প্লাগিন ব্যবহার করে সাইট আকর্ষনীয় করতে পারবেন।
  10. গুগল এডসেন্স এর জন্য আপনাকে আলাদা ভাবে এপ্লাই করতে হবে আইমিন ম্যানুয়াল্লী।
  11. এটিও যেকোন ধরনের অল্টারনেটিভ  এডস লাগিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

ব্লগারের সুবিধাঃ

  • এতে কোন হিডেন চার্জ কাটবে না তাই সম্পূর্ন বিনামূল্যে এটিকে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • এটি ব্যবহার করা একে বারে সহজ মোটামোটি ইংলিশ বুঝলেই মাল্টিফাংশন গুলো ব্যবহার করতে পারবেন,না পারলেও সমস্যা নাই বাংলাতেও ভাষা পালটে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • মাত্র কয়েক ক্লিক করে নতুন ব্লগ বানাতে পারবেন এবং পুরানো ব্লগ ডিলিট করতে পারবেন।
  • আপনার কোডিং এর জ্ঞান না থাকলে এটি অত্ত্যন্ত সহজ কারন খুব সুন্দর একটি ব্লগ তৈরী করার পাশাপাশি ব্লগিং করতে পারবেন।
  • ব্লগের কোড গুলো কাস্টমাইজ না করেও ভেরিএবেল এর সাহায্য সুন্দর ডিজাইন করতে পারবেন।
  • যেহেতু এটি গুগলের নিজস্ব প্রোডাক্ট তাই এটিকে এসওই এর ক্ষেত্রে অনেক বেশি গুরুত্ব দেয় গুগল এবং এর রেজাল্ট ও থাকে অসাধারন। এবং এরা এটিকে গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে খুব প্রধান্য দিয়েছে বলেই খুব অল্প সময়ে খুব ভালো রেজাল্ট মিলে যায়।
  • ব্লগারের আর্টিকেল গুলো তাদের নিজেদের সার্ভার থেকে পরিচালনা করা হয়ে যার কারনে এটি প্রচুর ফাস্ট করা হয় এবং আপনি চাইলে থিম কাস্টমাইজ করে খুব সহজেই সাইটের পেজ লোডিং স্পীড বাড়িয়ে নিতে পারেন।
  • অল্প টাকাতে সহজেই প্রিমিয়াম টেমপ্লেট কিনে নিতে পারেন ডেভলোপারের থেকে না চাইলেও সমস্যা নাই ফ্রিতেই প্রচুর প্রিমিয়াম টেমপ্লেট আছে গুগল সার্চ কিংবা ইউটিউব করলে পেয়ে যাবেন।
  • ব্লগার মোবাইল ফ্রেন্ডলি এবং বিশেষ ভাবে মোডিফাই করা হয়েছে তাই আপনি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থেকে খুব সহজেই এটি পরিচালনা করতে পারবেন।
  • এর যেকোন সমস্যা গুগলে খুব ভালো ভাবে বিশ্লেষন করা থাকে তাই সমস্যা খুব সহজেই সলভ করা যায়।
  • এটিতে আপনি চাইলে অল্প টাকাতেই আলাদা কাস্টম ডোমেইন এড করে নিতে পারবেন।
  • ব্লগার কে গুগল ডিফল্ট ভাবে এডসেন্স থেকে ইনকামের সুযোগ করে রেখেছে।
  • ব্লগার সাইট গুলো হ্যাক বা ভাইরাসে আক্রান্ত হবার কোন সুযোগ নেই।তাই আপনার ফাইল এবং কন্টেন্ট মুছে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই।
  • আপনি চাইলে ব্লগার এর একটি সাইটকে সারা জীবন ব্যবহার করতে পারবেন।এবং একটি ব্লগার একাউন্ট দিয়ে ১০০ টি সাইট ওপেন করতে পারবেন।

 

আপনার ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস?

উপরে আমি আগেই বলেছি দুইটাই ব্লগিং বা ব্লগ লেখার ক্ষেত্রে খুব ভালো মানের প্লাটফর্ম। 
এবং একটি ফ্রি এবং অন্যটি ব্যবহা করতে মাসিক কিংবা বাৎসরিক ভাবে ব্যবহার করতে টাকা খরচ করতে হবে। 
 
তবে আপনি চাইলে ব্লগারে কাস্টম ডোমেইন এড করে নিতে পারবেন।
 
তবে যেহেতু ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করতে টাকা খরচ করতে হয় সেহেতু আপনি ব্লগার এর থেকে ওয়ার্ডপ্রেস এ বাড়তি সুবিধাও পাবেন বেশি।
 
 
তবে আমার পক্ষ থেকে আপনাকে পরামর্শ দিতে চাই আপনি যদি ব্লগিং জগতে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে ব্লগার কে বেছে নিতে। 
 
তবে আপনি যদি প্রতিষ্ঠানিক ভাবে বা প্রোফেশনাল ভাবে ব্লগিং করতে চান সে ক্ষেত্রে ওয়ার্ডপ্রেস আপনার জন্য।
 
আপনি চাইলে যেকোন ডেভলোপারদের থেকে রেডিমেট সাইট ও কিনে ব্যবহার করতে পারেন।
 
যদিও ব্লগার এর তুলনায় ওয়ার্ডপ্রেস এর এসওই করা অনেক সহজ কারন এর কিছু প্লাগিন রয়েছে যার থেকে খুব সহজেই অন্যান্যদের তুলনায় গুগলে প্রথমে র‍্যাংক করা যায়।
 
আশা করি আপনি আজকের নিবন্ধিত ব্লগ থেকে আপনার মনের সংশয় দূর করতে পারবেন।
 
এবং পোষ্ট টিতে খুব ভালো ভাবে ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর বিষয়ে আলোচনা করেছি তবে বোঝার সুবিধার্তে ওয়ার্ডপ্রেস এর বিষয়ে একটি বিস্তারিত পোষ্ট আপডেট করবো। 
 
আজকের এই পোষ্টটি আপনি খুব ভালো ভাবে পড়লেই বুঝতে পারবেন যে ব্লগিং এর জন্য কোন মাধ্যমটি আপনার কোন টি দরকার।
 
যদি ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন এতে আপনার বন্ধুরা আপনার থেকে উপকৃত হবে।এবং যেকোন মতামতের জন্য নিচের কম্মেন্ট বক্সে কম্মেন্ট করে জানাতে পারেন।

Related Posts

Leave a Comment